সরকার দেশকে দুর্ভিক্ষের দিকে ঠেলে দিয়েছে: এবি পার্টি

বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২৪, ২০২২

ঢাকা: সরকার দেশকে দুর্ভিক্ষের দিকে ঠেলে দিয়েছে বলেও অভিযোগ করেছেন আমার বাংলাদেশ পার্টির (এবি পার্টি) সদস্য সচিব মজিবুর রহমান মঞ্জু।

বুধবার (২৩ নভেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাব চত্বরে এবি পার্টির যুব শাখা আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মজিবুর রহমান মঞ্জু বলেন, ‘বার বার দ্রব্যমূল্য বাড়িয়ে, রিজার্ভ শূন্য করে, দেশকে দুর্ভিক্ষের দিকে ঠেলে দিয়ে সরকার বলছে, খেলা হবে।’

তিনি বলেন, ‘তাদের এই সর্বনাশা মরণখেলা থেকে জাতিকে রক্ষার জন্য জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। অতীতে কোনো স্বৈরশাসকই জনগণের ঐক্যবদ্ধ সংগ্রামের সামনে টিকতে পারেনি।’

নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকার জন্য ‘সরকার বারবার মিথ্যা তথ্য দিয়ে’ দেশের অর্থনীতিকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে এসেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘তাদের লুটপাট ও অপশাসনের কারণে সোনার বাংলা আজ শ্মশান হওয়ার অপেক্ষায়।’

মঞ্জু বলেন, ‘জঙ্গি ক্যাডাররা যেমন পুলিশের চোখে পিপার স্প্রে মেরে আসামি ছিনতাই করে নিয়ে গেছে, তেমনই গত ১৫ বছর ধরে সরকার ভুয়া উন্নয়নের স্প্রে মেরে আমাদের স্বাধীনতা, গণতন্ত্র, ভোট ও ভাতের অধিকার ছিনতাই করে নিয়ে গেছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে কারও ডাক বা আহ্বানের পরোয়া না করে সময়মতো সবাইকে একযোগে রাজপথে নেমে এসে এই সরকারের পতন নিশ্চিত করতে হবে।’

দলটির যুগ্ম সদস্য সচিব ব্যারিস্টার আসাদুজ্জামান ফুয়াদ বলেন, ‘বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জিম্বাবুয়ের স্বৈরশাসক রবার্ট মুগাবের পদাঙ্ক অনুসরণ করছেন। মুগাবে যেভাবে জিম্বাবুয়ের অর্থনীতিকে লুটেরাদের হাতে দিয়েছিল, তেমনই আজ আওয়ামী লীগ সরকার লুটেরাদের দিয়ে দেশকে ফকির করে ছেড়েছে।’

এবি পার্টির ঢাকা মহানগর দক্ষিণের আহ্বায়ক বিএম নাজমূল হক বলেন, ‘জ্বালানি সংকটে আজ রপ্তানিমুখী শিল্প ধ্বংসের মুখে। গার্মেন্টসগুলো পর্যাপ্ত প্রোডাকশন দিতে পারছে না। অন্য শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলো খুঁড়িয়ে চলছে। সরকারকে বলব, অবিলম্বে পদত্যাগ করুন, দেশকে সচল রাখুন। নইলে জনগণ সংগ্রামের মাধ্যমে তাদের অধিকার আদায় করে নেবে, ইনশাআল্লাহ।’

দলটির যুব পার্টির আহ্বায়ক এবিএম খালিদ হাসানের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে কেন্দ্রীয় অফিস সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুল্লাহ আল মামুন রানা, সিনিয়র সহকারী সদস্য সচিব আনোয়ার সাদাত টুটুল, অর্থ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, সহকারী সদস্য সচিব শাহ আব্দুর রহমান, যুব পার্টির সদস্য সচিব শাহাদাত উল্লাহ টুটুল, মহানগর দক্ষিণের যুগ্ম আহ্বায়ক আনোয়ার ফারুক, গাজী নাসির, যুবনেতা মোস্তাক আহমেদ, মিনহাজুল আবেদীন শরীফ,সফিউল বাসার, অ্যাডভোকেট আলী নাসের খান, তফাজ্জল হোসেন রমিজ, শেখ লুৎফর রহমান, ছাত্রনেতা মো. প্রিন্স, ফেরদৌসী আক্তার অপি, হাদিউজ্জামানসহ এবি পার্টি ও যুব পার্টির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

সমাবেশ শেষে বিক্ষোভ মিছিল করে আমার বাংলাদেশ পার্টি। মিছিলটি পল্টন, বিজয়নগর, কাকরাইলসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে বিজয় নগর দলীয় কার্যালয়ে এসে শেষ হয়।