ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা ছাত্রী, কলেজ শিক্ষক গ্রেফতার

বুধবার, নভেম্বর ২, ২০২২

বগুড়া: ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে বগুড়ায় সরকারি আজিজুল হক কলেজের এক সহযোগী অধ্যাপককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তার নাম জিন্নাতুল ইসলাম প্রামাণিক (৫৩)। তিনি ওই কলেজের হিসাববিজ্ঞান বিভাগে কর্মরত আছেন।

গতকাল মঙ্গলবার (১ নভেম্বর) রাতে এক ছাত্রীর (২২) অভিযোগের প্রেক্ষিতে শহরের চকসূত্রাপুর রানারসিটি হাউজিংয়ের নিজ বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীটি।

পরে রাত সাড়ে ১১টার দিকে বগুড়া সদর থানায় জিন্নাতুল ইসলামের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেন ওই ছাত্রী।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বগুড়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরে আলম সিদ্দিক। তিনি জানান, ওই ছাত্রীর লিখিত অভিযোগের পরেই জিন্নাতুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়।

এজাহারের তথ্য অনুযায়ী, ৩-৪ বছর আগে প্রাইভেট পড়তে গিয়ে জিন্নাতুলের সঙ্গে ওই ছাত্রীর পরিচয় হয়। এক পর্যায়ে ছাত্রীকে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত করতে বাধ্য করেন জিন্নাতুল। তার নগ্ন ছবি ও ভিডিও মোবাইল ফোনে ধারণ করে রাখেন। পরে ওই ছাত্রী বিয়ের জন্য চাপ দিলে তাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতে থাকেন ওই শিক্ষক।

পরে ‘ছবি ও ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার’ হুমকি দিয়ে তাকে ধর্ষণ করতে থাকেন। সর্বশেষ গত ১০ অক্টোবর ওই শিক্ষক নিজের বাসায় ছাত্রীকে ধর্ষণ করেন। ওই ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা হলে ৩১ অক্টোবর স্থানীয় একটি রেস্তোরাঁয় বসে তাকে গর্ভপাতের জন্য চাপ দেন জিন্নাতুল। কিন্তু মেয়েটি রাজি হয়নি। এ নিয়ে দুজনের মধ্যে মনোমালিন্য ও তর্কাতর্কি হয়। এরপর ওই তরুণী সদর থানায় অভিযোগ করেন।