শীতে চুলের যত্ন

Tuesday, January 10th, 2023

লাইফস্টাইল ডেস্ক : শীতকালে বাতাস শুষ্ক থাকার কারণে আমাদের চুলও শুষ্ক ও রুক্ষ হয়ে যায়। পাশাপাশি বাইরের ধুলাবালির প্রভাবও পড়ে চুলের ওপর। ফলে খুসকি থেকে শুরু করে চুলের নানাবিধ সমস্যা দেখা যায়। তাই শীতকালে ত্বকের পাশাপাশি চুলেরও চাই বাড়তি যত্ন। বাড়িতেই কীভাবে চুলের যত্ন নেবেন জেনে নিন।

হট অয়েল ট্রিটমেন্ট:

শীতকালে গরম তেল মাথায় মাসাজ করা খুব উপকারী। নারকেল তেল বা অলিভ অয়েল গরম করে লাগাতে পারেন। এর সঙ্গে মিশিয়ে নিতে পারেন ডিম এবং মধু। গোসলের এক ঘণ্টা আগে তেল মাসাজ করুন। গোসলের সময় ভালো করে শ্যাম্পু করে ধুয়ে নিন। একটি পাত্রে নারকেল তেল, আপেল সিডার ভিনেগার এবং মধু মিশিয়ে নিন। চুলে ও মাথার তালুতে লাগিয়ে নিন। আধা ঘণ্টা রেখে দেওয়ার পরে শ্যাম্পু করে নিন।

হেয়ার মাস্ক:

দুই চা চামচ ফ্রেশ অ্যালোভেরা জেল, এক চা চামচ মধু এবেং তিন চা চামচ নারকেল তেল মিশিয়ে মাস্ক তৈরি করুন। আধা ঘণ্টা মতো রেখে শ্যাম্পু করে ফেলুন। শুকনো চুলের জন্য এই মাস্ক ভালো কন্ডিশনারের কাজ করবে। চুলে বাউন্স আসবে সহজে।

ইয়োগার্ট, লেবু এবং ভিনেগার:

শীতের জন্য রেগুলার শ্যাম্পু ব্যবহার না করে ময়েশ্চারাইজারযুক্ত শ্যাম্পু এবং সঙ্গে অবশ্যই ক্রিম কন্ডিশনার বেছে নিন। একটি পাত্রে ইয়োগার্ট নিন। তার সঙ্গে আপেল সিডার ভিনেগার এবং লেবুর রস মিশিয়ে নিয়ে মাথার তালু এবং চুলে লাগিয়ে নিন। আধা ঘণ্টা রেখে দেওয়ার পর রেগুলার শ্যাম্পু ব্যবহার করে ধুয়ে ফেলুন।

ঘুমাতে যাওয়ার আগে তেল লাগান:

প্রতি রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে একটি পাত্রে নারকেল তেল, জোজোবা অয়েল ও অলিভ অয়েল মিশিয়ে নিন। জোজোবা কিংবা অলিভ অয়েল না থাকলে কম খরচে ক্যাস্টর অয়েলও ব্যবহার করতে পারেন। তেলের ওই মিশ্রণকে প্রথমে ফুটিয়ে নিন। ফোটানোর সময় এতে কাঁচা আমলকির টুকরো ও কিছুটা লেবুর রস যোগ করুন। মিশ্রণটি ঠাণ্ডা করে চুলের গোড়ায় লাগান একদিন অন্তর। সারা রাত মাথায় স্কার্ফ বেঁধে রাখুন। পরের দিন গরম জলে শ্যাম্পু করে চুল ধুয়ে নিন। শ্যাম্পুর পর কন্ডিশনার লাগাতে ভুলবেন না।

অ্যালোভেরা হেয়ার মাস্ক:

দুই চা চামচ ফ্রেশ অ্যালোভেরা জেল, এক চা চামচ মধু এবং তিন চা চামচ নারকেল তেল মিশিয়ে মাস্ক তৈরি করুন। আধা ঘণ্টা মতো রেখে শ্যাম্পু করে ফেলুন। শুকনো চুলের জন্য এই মাস্ক ভালো কন্ডিশনারের কাজ করবে। চুলে বাউন্স আসবে সহজে।

সূর্যের আলো:

চুলে সূর্যের আলো লাগান। কেননা সূর্য থেকে প্রাপ্ত ভিটামিন ডি চুলের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। একইসঙ্গে এটি মাথায় রক্ত চলাচলেও উন্নতি ঘটায়। এছাড়া চুলের এই যত্নগুলোর পাশাপাশি খান সুষম খাদ্য ও পচুর পরিমাণে পানি।