তিন মাসের ব্যবধানে ফের কুয়েত সরকারের পদত্যাগ

Tuesday, January 24th, 2023

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : তেল সমৃদ্ধ উপসাগরীয় দেশ কুয়েতের রাজনৈতিক অচলাবস্থা কাটছেই না। ক্যাবিনেট গঠনের মাত্র তিন মাসের ব্যবধানে ফের পদত্যাগ করেছে দেশটির সরকার। মূলত আইনপ্রণেতাদের সঙ্গে বিরোধের জেরে পদত্যাগ করেছে তারা। খবর আল-জাজিরার।

প্রতিবেদনে কাতার ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যমটি জানায়, গত অক্টোবরে কুয়েতে মন্ত্রীসভা গঠন করা হয়। তবে সম্প্রতি সময়ে ঋণ ত্রাণ বিল নিয়ে আইনপ্রণেতাদের সঙ্গে মতবিরোধ হয় মন্ত্রীসভার সদস্যদের। এর জেরেই পদত্যাগ করেছে দেশটির সরকার।

কুয়েতের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা কুনা জানিয়েছে, সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ আহমেদ নওয়াফ আল-সাবাহ নিজের ও মন্ত্রীসভার পদত্যাগ পত্র ক্রাউন প্রিন্সের কাছে জমা দিয়েছেন। তবে ক্রাউন প্রিন্স পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেছেন কি না, তা এখনো জানা যায়নি।

গত বছর নওয়াফকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত করেন ক্রাউন প্রিন্স শেখ মেহশাল আল-সাবাহ।

কুয়েতে সরকার নিয়োগ করে রাজপরিবার। তবে আইনপ্রণেতারা গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত হন এবং তারা এই অঞ্চলের অন্য দেশের তুলনায় অনেক বেশি স্বাধীনতা ভোগ করেন। আইন পাস ও আটকে দেওয়ার ক্ষমতা, মন্ত্রীদের জিজ্ঞাসাবাদ এবং জ্যেষ্ঠ সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে অনাস্থা ভোটের ডাক দেওয়ার ক্ষমতা রয়েছে তাদের।

সম্প্রতি সময়ে নতুন সরকারের মন্ত্রীদের সঙ্গে আইনপ্রণেতাদের মধ্যে বিবাদ বেড়ে যায়। আইনপ্রণেতারা একটি ত্রাণ বিলের জন্য সরকারকে চাপ দিয়ে আসছিল। ওই বিল পাস হলে নাগরিকের ব্যক্তিগত ঋণ কিনতে পারতো কুয়েত সরকার। এনিয়ে দুই মন্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চেয়েছিল আইনপ্রণেতারা।

কুয়েত পার্লামেন্ট ও অর্থনৈতিক কমিটির প্রধান শোয়াব আল-মুওয়াজিরি রোববার এক টুইট বার্তায় বলেন, ‘মজুরি, অবসর ভাতা ও সামাজিক সহায়তা বাড়ানোর জন্য বিকল্প পদক্ষেপ সরকার না দিলে ব্যক্তিগত ঋণের কাগজ টেবিলেই থাকবে। ’

আল-জাজিরা বলছে, তেল উৎপাদনকারী ধনী দেশটি নিজেদের অর্থনীতি সাজিয়ে তোলার চেষ্টা করছে। তবে রাজনৈতিক অস্থিরতায় এমনটা হচ্ছে না। এমনকি তারা একটি ঋণ আইন বাস্তবায়নের চেষ্টায় রয়েছে। এতে করে আন্তর্জাতিক বাজারে প্রবেশ করতে পারবে দেশটি।