অর্থনৈতিক বিপর্যয় উত্তরণে সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনের বিকল্প নাই : গণতন্ত্র মঞ্চ

Tuesday, October 3rd, 2023

দেশের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক বিপর্যয় থেকে উত্তরণের জন্য অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের অধিনে সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনের বিকল্প নাই বলে জানিয়েছে গণতন্ত্র মঞ্চ।

মঙ্গলবার বিকেলে গণতন্ত্র মঞ্চের উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে ‘রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের মুখে বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন জোটের নেতৃবৃন্দ।

এতে ঢাকসু’র সাবেক ভিপি নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্নার সভাপতিত্বে ও নাগরিক ঐক্যের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল্লাহ কায়সারের পরিচালনায় আলোচনায় সভায় বক্তব্য রাখেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি’র সভাপতি আ স ম আবদুর রব, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, ভাসানী অনুসারী পরিষদের আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু ও রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলন-এর সাংগঠনিক সমন্বয়ক ইমরান ইমন।

সভাপতির বক্তব্যে মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, রিজার্ভে ধস নেমেছ, রপ্তানি কমেছে, অর্থনীতির সূচক নিম্নমুখী। সরকার দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ করতে ব্যর্থ হয়েছে। সরকার এখন অসংলগ্নমূলক কথাবার্তা বলে জনগণকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে। বিনা অনুমতিতে সভা-সমাবেশ করতে না দেওয়ার ঘোষণা সরকারের দেউলিয়াত্বের প্রমাণ। তিন বারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে শেখ হাসিনার বক্তব্য প্রমাণ করে উনি প্রধানমন্ত্রী পদে থাকার যোগ্যতা হারিয়েছেন।

এ সময় আ স ম আবদুর রব বলেন, এই সরকার অবৈধ ও অসাংবিধানিক সরকার। একটা সংসদের মেয়াদ থাকা অবস্থায় আরেকটি সংসদের নির্বাচন করা অবৈধ। সরকার সারা বিশ্ব থেকে দেশ ও জনগণকে বিচ্ছিন্ন করে দিচ্ছে। বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি বা চিকিৎসা করাতে হলে প্রয়োজনে লড়াই করতে হবে। কৃষক শ্রমিক ছাত্র-যুবককে সবাইকে এই সংগ্রামে অবতীর্ণ হতে হবে।

সাইফুল হক বলেন, খাদ্য সংকট, পুষ্টি সংকটে জনগণকে কষ্ট দেয়া হচ্ছে। উন্নয়নের নামে অর্থ আত্মসাৎ করা হচ্ছে। শেখ হাসিনাকে দ্রুত পদত্যাগ করে নির্বাচনকালীন সরকার গঠনের উদ্যোগ নিতে হবে তাছাড়া উনাকে ন্যাক্কারজনকভাবে বিদায় নিতে হবে।

জোনায়েদ সাকি বলেন, অর্থনৈতিক সংকট আরও গভীর হতে পারে। অর্থ পাচার করে এই দেশকে পঙ্গু করে দেওয়া হয়েছে। রাষ্ট্রকে একটি ফ্যাসিস্ট রাষ্ট্রে পরিণত করেছে এই সরকার। আগামীতে দেশের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক বিপর্যয় থেকে রক্ষা করতে হলে এই ফ্যাসিবাদী সরকারের পদত্যাগ করতে হবে এবং নতুন গণতান্ত্রিক বন্দোবস্ত প্রতিষ্ঠা করতে হবে।